আমাকে মনে রাখবেন, ভুলে যাবেন না: তামিম ইকবাল « বাংলাখবর প্রতিদিন

আবেগঘন বক্তব্যে হয়তো অবসরের বার্তা দিলেন

আমাকে মনে রাখবেন, ভুলে যাবেন না: তামিম ইকবাল

মোঃ হাসানুজ্জামান বিশেষ প্রতিনিধি।
আপডেটঃ ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ | ১০:৪৭
মোঃ হাসানুজ্জামান বিশেষ প্রতিনিধি।
আপডেটঃ ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ | ১০:৪৭
Link Copied!
ভিডিও বার্তায় তামিম ইকবাল -- দৈনিক বাংলাখবর প্রতিদিন

দীর্ঘদিন ধরেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড নানা বিতর্কের জন্ম দিয়ে আসছে। এবার সেই বিতর্ক চরমে পৌঁছেছে দেশ সেরা ওপেনার ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনের উজ্জ্বল তারকা তামিম ইস্যুতে। এবারের বিশ্বকাপ দলে সুযোগ দেয়া হয়নি তামিম ইকবালকে। বিভিন্ন বিতর্কিত বিষয়ের কড়া জবাব দিয়ে নিজের অবস্থান পরিস্কার করে এক ভিডিও বার্তায় নানাবিধ ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলেছেন তিনি। অভিযোগ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) এক কর্তার বিরুদ্ধে। তবে সেই কর্তার নাম বলেননি তামিম।

তার বক্তব্য হুবহু তুলে ধরা হলো-

“শেষ কয়েকদিনে যা যা লেখা হয়েছে আর আসলে যা ঘটেছে, তা সম্পূর্ণ আলাদা। যা যা ঘটেছে, পুরো জিনিসটাই পরপর সবাইকে জানাই। কারণ যারা আমার এবং বাংলাদেশের ক্রিকেটের ভক্ত, তাদের এটা জানা উচিত। সবাই জানেন, আমি অবসর নিয়ে ফেলেছিলাম। তার কারণ ছিল। কিন্তু তারপর প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধে ফিরে আসি। পরের দুমাস আমি প্রচণ্ড পরিশ্রম করি নিজেকে ফিট করার জন্য। আমি নিশ্চিত, ফিজিও থেকে শুরু করে বাকি যারা এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, সবাই একমত হবেন, এমন কোনো সেশন বা এক্সারসাইজ ছিল না, যেটা তারা চেয়েছেন কিন্তু আমি করিনি।

বিজ্ঞাপন

ম্যাচের দিন এগিয়ে এলো। কিন্তু মানসিকভাবে আমি খুব একটা খুশি ছিলাম না। আসলে এটা সহজ না। যাই হোক, প্রথম ম্যাচে ৩০-৩৫ ওভার ফিল্ডিং করলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাইনি।

পরের ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সুযোগ এলো। আমার জন্য যেটা সব থেকে বেশি দরকার ছিল, সেটা হলো দলের জয়। কিন্তু ওই ম্যাচে আমরা হেরে গেলাম। তবে ওই সময় আমার কিছুটা রান করারও দরকার ছিল।

বোঝার ছিল, ব্যাটিংটা কেমন হচ্ছে। যেভাবে ব্যাটিং করেছি তাতে খুশি ছিলাম। মাত্র ৪৪ রান করলেও আমি বিশ্বাসী ছিলাম বড় কিছুর জন্য। ওই ম্যাচের পর মানসিক দিক দিয়ে খুব খুশি ছিলাম। তার আগের চার-পাঁচ মাসে যা হয়েছিল, তখন আর সেগুলো মাথায় ছিল না সেভাবে। আবার খেলার জন্য মুখিয়ে ছিলাম। বিশ্বকাপ খেলতে মুখিয়ে ছিলাম।

বিজ্ঞাপন

এতদিন পর যখন খেলতে নেমেছি, চোট থেকে সেরে উঠেছি, স্বাভাবিকভাবেই ব্যথা, অস্বস্তি থাকবেই। প্রথম ম্যাচের পরও ব্যথা অনুভব করেছি। যখন খেলা শেষ হলো, ফিজিওকে বললাম যে, আমি কেমন বোধ করছি। ঠিক ওই মুহূর্তে তিনজন নির্বাচক আমাদের ড্রেসিংরুমে আসেন। এখানে একটা ব্যাপার পরিষ্কার করে বলে দিতে চাই, আমি কখনো কাউকে বলিনি যে, বিশ্বকাপে পাঁচটা ম্যাচের বেশি খেলতে পারব না। আমি নিশ্চিত, গতকাল নান্নু ভাইও (বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন) এটা পরিষ্কার করে দিয়েছেন। আমি জানি না এটা সংবাদমাধ্যমে কীভাবে খাওয়ানো হয়েছে, কে করেছে।

এটা মিথ্যা কথা, ভুল কথা। আমি নির্বাচকদের যেটা বলেছিলাম সেটা হলো, আমার শরীর এখন এরকমই থাকবে। মাঝে মাঝে ব্যথা থাকবে। ফলে দল যখন নির্বাচন করবেন, এটা মাথায় রেখে করবেন। কখনো কোথাও বলা হয়নি যে, পাঁচ ম্যাচ বা দুই ম্যাচ চোটের জন্য খেলতে পারব না। হ্যাঁ, আমার শরীরে ব্যথা ছিল, এটা অস্বীকার করছি না। কিন্তু আমার চোট রয়েছে, এটা কখনো বলা যাবে না।

যাই হোক, তার দু-একদিন পর আমাকে বোর্ডের উপর মহল থেকে একজন ফোন করলেন। উনি আমাদের ক্রিকেটে অত্যন্ত ঘনিষ্ঠভাবে যুক্ত। আমাকে হঠাৎ ফোন করে উনি বললেন, ‘তুমি তো বিশ্বকাপে যাবা। তোমাকে তো ম্যানেজ করে খেলতে হবে। তুমি এক কাজ করো, আফগানিস্তানের সঙ্গে প্রথম ম্যাচটা খেলো না।’ আমি বললাম, ‘এখনো তো ১২-১৩ দিন বাকি। আমি তো এর মধ্যে ভালো কন্ডিশনে পৌঁছে যেতে পারি। তাই এখনই কী করে বলছেন যে, প্রথম ম্যাচে খেলব না?’ উনি তখন বললেন, ‘আচ্ছা তুমি যদি খেলো, তাহলে তোমাকে নিয়ে আমাদের একটা পরিকল্পনা রয়েছে। তোমাকে নিচের দিকে ব্যাট করাব।’

বলা হচ্ছে, আমি পাঁচটা ম্যাচ খেলতে চেয়েছি। এমন কোনো কথাই হয়নি। সেদিন সিলেক্টর, ফিজিও, ট্রেনার সবাই ছিলেন। তখন খুব খারাপ তিন-চার মাস কাটিয়ে আমি সবে ক্রিকেটে ফিরেছিলাম। আমার জন্য খুব কঠিন ছিল ওই তিন-চার মাস। গোটা ব্যাপারটাই যদি আমাকে অন্যভাবে বলা হতো তাহলে হয়তো বিষয়টা মেনে নিতাম। কিন্তু হঠাৎ করে কেউ যদি ফোন করে বলেন, খেলানো হবে না বা খেলালেও নিচে ব্যাটিং করাবে, জানি না এটা কতটা ঠিক। ঠিক এটাই হয়েছিল। এরচেয়ে বেশি কিছু আমার বলার নেই।

আশা করব, যে ১৫ জন বিশ্বকাপে যাচ্ছে, তারা বাংলাদেশের জন্য সাফল্য নিয়ে আসবে। একবার-দুবার ভুল বোঝাবুঝি হতে পারে। কিন্তু একজনের সঙ্গে তিন-চার মাসে যদি সাত-আটবার এ রকম হয়, বুঝতে হবে সেটা ইচ্ছাকৃত।
এছাড়াও সার্বিক বিষয়ে তামিম বিশদ ব্যাখ্যা করেন।

তবে দলে না থাকলেও যারা বিশ্বকাপে গিয়েছেন তাদেরকে শুভকামনা জানাতে ভুলেননি এই ওপেনার। তামিম বলেন, ‘আমি উইশ করব যে ১৫ জন বিশ্বকাপে গিয়েছে, তারা যতটুকু সম্ভব বাংলাদেশের জন্য সাকসেস নিয়ে আসবে।’

ভিডিওর শেষে এক আবেগঘন বার্তা দেন তামিম। ভক্তদের অনুরোধ করেন যেন তাকে সবাই মনে রাখেন। তিনি আবেগঘন কন্ঠে বলেন,

“আর একটা কথা, আমাকে সবাই মনে রাখবেন। ভুলে যাবেন না।”

বিষয়ঃ:

শীর্ষ সংবাদ:
এবারের ঈদে রুবি মাল্টিমিডিয়ার “ভালোবাসায় রাখি তোমায়” হোমনার দুলালপুরে ঈদ উপলক্ষে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ হোমনায় প্রান্তিক কৃষকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত উন্মুক্ত উদ্ভিদ পাঠশালায় শোভাবর্ধক গাছ বিতরণ নব-নির্বাচিত শৈলকুপা ও হরিনাকুন্ডু উপজেলা চেয়ারম্যানের শপথ গ্রহণ হোমনায় বাড়ির ছাদে ড্রাগন চাষে সফলতা নরসিংদীতে পাঁচশত অসহায় ও দুস্থদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার বিতরণ নরসিংদীর শিবপুরে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ নরসিংদীতে ভূমি সেবা সপ্তাহের উদ্বোধন টাঙ্গাইল জেলার সকল থানার অফিসার ইনচার্জগনের সমন্বয়ে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি ২৪-২৫ সাক্ষর রাজধানীতে কিশোরগ্যাংয়ের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৬,আটক ১১ সখীপুরে সাপের কামড়ে প্রাণ গেল এক শিশুর টেন্ডার ছাড়াই সরকারি গাছ উপড়িয়ে ফেলার অভিযোগ উপজেলা প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে সখীপুরে প্রয়াত এস,এম আজহারুল ইসলাম স্যারের ১৫তম মৃত্যু বার্ষিকী শাহজাদপুর উপজেলা চেয়ারম্যান এর সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় স্ত্রী ধর্ষনের প্রতিশোধ নিতেই শাহাজান কবিরাজকে হত্যা কালিগঞ্জ উপজেলায় ভূমিসেবা সপ্তাহ উদ্বোধন, র‍্যালী ও আলোচনা সভা ভার্সিটির ফিশারিজ বিভাগের শিক্ষার্থীরা নিচ্ছেন হাতে কলমে প্রশিক্ষন হোমনা উপজেলা নির্বাচনে পছন্দের প্রার্থীর বিজয়ে আনন্দ মিছিল