সামাজিক সংগঠনের নামে সরকারি রাস্তা দখল করে অবৈধ স্থাপনা-নানা মহলের অভিযোগ! « বাংলাখবর প্রতিদিন

সামাজিক সংগঠনের নামে সরকারি রাস্তা দখল করে অবৈধ স্থাপনা-নানা মহলের অভিযোগ!

মোঃ শামিম হোসেন সিনিয়র রিপোর্টার, ঢাকা, বাংলাদেশ
আপডেটঃ ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ৭:০২
মোঃ শামিম হোসেন সিনিয়র রিপোর্টার, ঢাকা, বাংলাদেশ
আপডেটঃ ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ৭:০২
Link Copied!
সামাজিক সংগঠনের নামে সরকারি রাস্তা দখল করে অবৈধ স্থাপনা-নানা মহলের অভিযোগ! -- দৈনিক বাংলাখবর প্রতিদিন

মাতৃ-ছায়া প্রতিবন্ধী সমাজ কল্যাণ সংস্থার বিরুদ্ধে সরকারি রাস্তার উপর অবৈধ স্থাপনার মাধ্যমে যায়গা দখলের অভিযোগ উঠে এসেছে। মাতৃ-ছায়া প্রতিবন্ধী সমাজ কল্যাণ সংস্থা রাজধানীর মিরপুর ১২, ধ-ব্লক এলাকায় অবস্থিত। উক্ত সংস্থাটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ শহীদুল ইসলাম এবং সেক্রেটারি নাজমা বেগম। শহীদুল ইসলাম ও নাজমা বেগম সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী। নাজমা বেগমকে অনেকে মামলাবাজ নাজমা বলেও অভিহিত করেন। উক্ত সংস্থাটি ছোট্ট একটি দোকান ভাড়া নিয়ে অফিস হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। সংস্থাটি ২০০৭ সাল থেকে কাজ শুরু করে এবং ২০১৫ সালে লাইসেন্স প্রাপ্ত হয়। কিন্তু তাদের সংগঠনের নামে অবৈধ স্থাপনার কোন আইনগত অনুমতি নেই।

মাতৃ-ছায়া প্রতিবন্ধী সমাজ কল্যাণ সংস্থার সামাজিক কর্মকান্ড নিয়ে এলাকাবাসীর গুটিকয়েক ইতিবাচক মন্তব্য থাকলেও অধিকাংশ লোকের বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। বিভিন্ন মহল থেকে অভিযোগ পেয়ে সরজমিনে অনুসন্ধান করা হয়। সরজমিনে অনুসন্ধানের সময় এলাকাবাসী ও প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট সবার সাক্ষাৎকার নেয়া হয়। সাক্ষাৎকার কালে সংস্থাটির সেক্রেটারি নাজমা বেগম গণমাধ্যমকে জানান, তারা অসহায়, দুস্থ ও প্রতিবন্ধীদের জন্য কাজ করছে। প্রতিবন্ধীদের জন্য কাজ করতে হলে বিভিন্ন কর্মশালা ও প্রশিক্ষণের প্রয়োজন হয়। সাক্ষাৎকার গ্রহণের সময় নাজমা বেগমের কাছে জানত চাইলে তিনি তেমন কোনো প্রশিক্ষণ অভিজ্ঞতার কথা বলতে পারেন নি। নাজমা বেগম ও শহীদুল ইসলাম দীর্ঘদিন যাবত সামাজিক কার্যক্রম চালিয়ে আসলেও তারা সরকারি কোন দপ্তরে কখনো কোন যায়গা বরাদ্দের জন্য আবেদন করেন নি।

বিজ্ঞাপন

সরজমিনে অনুসন্ধানকালে স্থানীয় জনগণ নাম পরিচয় গোপন রাখার শর্তে জানায়, নাজমা বেগম ও শহীদুল ইসলাম বিভিন্ন ছলচাতুরী করে এই অবৈধ স্থাপনাটি করেছে। তারা স্বামী-স্ত্রী মিলে স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা, শাজাহান খান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যাসহ অনেকের নাম ভাঙিয়ে চলে। কিছুদিন আগেও তারা বিএনপি করতো। এখন আওয়ামী লীগ সেজে এমন অবৈধ দখলদারিত্ব চালিয়ে যাচ্ছে।

এলাকাবাসী বলেন, নাজমা বেগম ও শহীদুল ইসলাম ধর্মীয় অনুভূতিকে কাজে লাগিয়ে অবৈধ স্থাপনাটি করেছে। তারা বিভিন্ন মহল থেকে তাদের সংগঠনের নামে অর্থ সংগ্রহ করে। সেসব অর্থ ও সাহায্য তাদের গুটিকয়েক পছন্দের লোকদের মাঝে বিতরণ করে। কিন্তু অধিকাংশই তারা আত্মসাৎ করে এবং প্রকৃত অসহায় মানুষ সেবা পায় না। এছাড়া তারা বিভিন্ন মানুষকে সাহায্যের কথা বলে কৌশলে ব্ল্যাংক চেক,স্ট্যাম্প বানিয়ে অসহায় লোকদের থেকে টাকা আদায় করে। কিছু বলতে গেলেই মামলা ও পুলিশের ভয় দেখায়। তাই ভয়ে কেউ তাদের বিরুদ্ধে কিছু বলার সাহস করেনা।

বিজ্ঞাপন

বিভিন্ন মহলের অভিযোগ সম্পর্কে সরজমিনে অনুসন্ধানের সময় দেখা যায়, একটি রাস্তার পাশে মাতৃ-ছায়া প্রতিবন্ধী সমাজ কল্যাণ সংস্থার অফিস। তার পাশেই সরকারি রাস্তার উপর অবৈধভাবে টিনদিয়ে একটি স্থাপনা দাড় করিয়েছে।

এ বিষয়ে নাজমা বেগমকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, আমরা এই স্থাপনাটি সাময়িক সময়ের জন্য করেছি। কিছুদিন পর সরিয়ে নিব। অভিযোগ ও অপরাধ স্বীকার করে নাজমা বেগম বলেন, আমরা যে স্থাপনাটি করেছি তা আইনগতভাবে বৈধ নয় এবং কোন অনুমতিও নেই নি। তিনি প্রশ্ন করেন, এই এলাকায় বিভিন্ন যায়গায় এমন স্থাপনা রয়েছে। অনেকেই অনুমতি ছাড়াই বিভিন্ন স্থাপনা করছে। তাদেরকে কিছুই বলা হচ্ছে না। অথচ আমাকে চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে।

অভিযোগ সম্পর্কে বিশদ অনুসন্ধানের জন্য আরও অনেকের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হয়। কিছুদিন পর ঘটনাস্থলে সরজমিনে অনুসন্ধান করতে গিয়ে দেখা যায় আরেক রুপ। নাজমা বেগম অবৈধ স্থাপনাটি সরিয়ে নেন নি, বরং ইট দিয়ে আগের চেয়ে পাকাপোক্তভাবে অবৈধ স্থাপনাটি মজবুত করেছেন। উক্ত অবৈধ স্থাপনাটি যে বাড়ির পাশে রয়েছে, সেই বাড়ির মালিক একজন অসুস্থ বৃদ্ধা মহিলা। বৃদ্ধা মহিলা নাজমা বেগমকে অনেক অনুরোধ করেছেন স্থাপনাটি অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার জন্য। কিন্তু নাজমা বেগম কোন কথাই কর্নপাত করেননি।

উক্ত স্থাপনাটির পাশে একটি অসহায় মহিলার ছোট্ট চায়ের দোকান রয়েছে। সেখানে বিভিন্ন মাদকচোরাকারবারি ও নেশাখোরের আড্ডা,চলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ। সেই সাথে বাড়িমালিক বৃদ্ধা মহিলা বাসার জানালায় ইট ছুড়ে মারে। বৃদ্ধা মহিলা ভয়ে কাউকে কিছু বলেন না। পরবর্তীতে তার নিকটাত্মীয় ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজী জহিরুল ইসলাম মানিককে সহযোগিতা করতে বলেন। কাউন্সিলর ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসীর সাথে আলোচনা করে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন। তখন কাউন্সিলর নাজমা বেগমের স্বামীকে ফোন করেন ঘটনা সম্পর্কে জানার জন্য। কিন্তু তার মুঠোফোনে কল করলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

নাজমা বেগম জানান, কাউন্সিলর মানিক আমার কাছে চাঁদা দাবি করেছে। গত ৩১-১২-২০২২ ইং তারিখে আমার বাসায় কাউন্সিলর মানিকের কয়েকজন গুন্ডা-পাণ্ডা জোরপূর্বক প্রবেশ করে এবং আমার মেয়ের সাথে অশালীন আচরণ করে। এবিষয়ে পল্লবী থানায় নাজমা বেগম একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। যাহার (সাধারণ ডায়েরি) জিডি নং- ২৩৫৩।

নাজমা বেগম আরও বলেন, পরবর্তীতে ১৪-০১-২০২৩ ইং তারিখে কাউন্সিলর মানিক আমাদেরকে আবারও ফোনে হুমকি দেয়। তখন আমরা পল্লবী থানায় মামলা করতে চাই। কিন্তু থানা আমাদের মামলা নিতে রাজি হয়নি। তাই আমরা আদালতের দারস্থ হই। নাজমা বেগম ১৯-০১-২০২৩ তারিখে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। যাহার মামলা নং- ৩২/২০২৩। মামলাটি (পিবিআই) তদন্ত করছে।

এ বিষয়ে কাউন্সিলর মানিকের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হয়েছে। কাউন্সিলর মানিক জানান, নাজমা বেগম ও তার স্বামী শহীদুল ইসলাম আমার নামে মিথ্যা অভিযোগ করেছে। তারা আমার নামে বিভিন্ন মহলে অভিযোগ ও অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। আমার নামে যে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে, আমি ও আমার লোকেরা এমন কোন কাজ করিনি। অভিযোগগুলো সম্পুর্ন ভিত্তিহীন।

এলাকাবাসী জানান, নাজমা বেগম ও তার স্বামী যে সামজিক কাজ করছে করুক। কিন্তু কথিত প্রতিবন্ধী স্কুলের নামে ১৮কোটি মানুষের সরকারি রাস্তা জবরদখল আমরা মেনে নেবো না। আমরা এর বিচার চাই এবং প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করছি।

বিষয়ঃ:

শীর্ষ সংবাদ:
আপিল বিভাগের শুনানি এগিয়ে আনার ব্যবস্থা হচ্ছে: আইনমন্ত্রী রামপুরায় পুলিশ-শিক্ষার্থী সংঘর্ষে নিহত ১, আহত শতাধিক নরসিংদীতে কোটা আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের মানবন্ধন এনায়েতপুরে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা ও হত্যা, যা বলল জাতিসংঘ পালিয়েছে ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদক গভীর রাতে পালিয়েছেন ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সেক্রেটারি ঝিনাইদহে কোটা বিরোধী আন্দোলনে শিক্ষার্থীদের উপর ছাত্রলীগের হামলা, আহত ১০ রাজধানী সহ সারাদেশে চলছে কোটা সংস্কার আন্দোলন রাজশাহীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মা-মেয়ে আহত, থানায় অভিযোগ সমাবেশে হামলা, গুলিবিদ্ধ ট্রাম্প স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার সহযোগিতা চীন-বাংলাদেশ সম্পর্ককে এগিয়ে নেবে মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? বিদ্যুৎ ব্যবহার ২০ শতাংশ কমাতে ইসির ৮ নির্দেশনা কোটা নিয়ে মন্ত্রিসভায় আলোচনা করে সিদ্ধান্ত টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে বন্যায় পানি বন্দী প্রায় ৩০ হাজার মানুষ ঝিনাইদহ শৈলকুপায় সাবেক ইউপি সদস্য ও তার স্ত্রীকে মারধর, বাড়িঘর ভাংচুর রামগঞ্জে যুবদলের নবগঠিত কমিটিকে অভিনন্দন জানিয়ে রিপনের নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল নরসিংদীর মাধবদীতে ব্যাটারি চালিত রিক্সা চালক হত্যাকান্ডের ঘটনায় চার জন গ্রেপ্তার আজও সারাদেশে বাংলা ব্লকেড